Uncategorized

পল্লী বিদ্যুৎ নতুন মিটার অনলাইনে আবেদন করার পদ্ধতি বা নিয়ম ২০২২

বিদ্যুৎ মানুষের জীবনের নিত্য সঙ্গী. সুতরাং বিদ্যুৎ ছাড়া একদিনও চলা সম্ভব নয় এজন্য বিদ্যুতের সাথে মানুষের সম্পর্ক ওতপ্রোতভাবে জড়িত. অনেকে এখন পর্যন্ত বিদ্যুতের সংযোগ পাননি কিন্তু তারা বিদ্যুতের সংযোগ নিতে চান. কিন্তু জানেন না কিভাবে বিদ্যুতের মিটার এর সংযোগ অনলাইনে করতে হয় বা অনলাইনে কিভাবে মিটার পাওয়ার আবেদন করতে হয়. আজ আমরা আপনাদের সাথে ভাগ করে নেব কিভাবে অনলাইনে আবেদন করলে মিটার এর সংযোগ করা যাবে বা অনলাইনের মাধ্যমে মিটারের আবেদন করা যাবে.

পল্লী বিদ্যুতের মিটার অনলাইনে আবেদন করার পদ্ধতি

আপনি যদি পল্লী বিদ্যুতের মিটার অনলাইনে আবেদন করতে চান তাহলে আপনাকে একটি অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে এবং কিভাবে আবেদন ফর্মটি পূরণ করবেন তা নিচে পদক্ষেপ অনুসরণ করুন এবং সফলতার সাথে আবেদন গ্রহন করুন

অনলাইনে মিটারের আবেদন করার নিয়মাবলী

আপনার যদি ইন্টারনেট সম্পর্কে ভাল বুঝেন বা জ্ঞান থাকে তাহলে আপনি সহজে আবেদনটি করতে পারবেন প্রথমে আপনাকে আপনার ল্যাপটপ বা কম্পিউটার এর ইন্টারনেট সংযোগ প্রদান করতে হবে

  • তারপর আপনার ইন্টারনেট ব্রাউজার মাধ্যমে ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন এবং একটি ইন্টারফেস দেখা যাবে
  • এবার আপনার কম্পিউটার এর উপরের দিকে একটা আবেদন লেখা দেখতে পাবেন এবং সেই আবেদন লেখাটিতে ক্লিক করুন
  • আপনার ক্লিক করার পর একটি ফরম চলে আসবে সেখানে আপনার এলাকার বিদ্যুৎ অফিসের নাম, জোনাল অফিস, সংযোগ টোরিফ ইত্যাদি এসব তথ্য পূরণ করতে হবে
  • তাছাড়া আবেদনকারীর তথ্য যেমন: আবেদনকারীর নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, এনআইডি নম্বর মোবাইল নম্বর ও আপনার ঠিকানা সহ সমস্ত তথ্য ভালো করে পূরণ করুন

এছাড়াও আবেদনে আরো কিছু তথ্য পূরণ করতে হবে যেমন নিকটস্থ খুঁটে থেকে আপনার বাসার দূরত্ব কতদূর তার পরনে উল্লেখ করতে হবে এবং ট্রানসফর্মের নিকটবর্তী গ্রাহকের বই নাম্বার ও হিসাব নাম্বার লিখতে হবে. তাছাড়াও আপনার এক কপি ছবি, জমি খারিজের ছবি, ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ছবি দিয়ে এরপর আবেদনটি ভালোভাবে পূরণ করে সাবমিট করুন. আবেদনটি ভালোভাবে সাবমিট সম্পন্ন হলে সাবমিট কপি টি ডাউনলোড করে সংরক্ষণ করুন. এরপরে খুঁটির দূরত্ব মাপার অনুমতি পেলে আপনার মোবাইল নাম্বারে জামানত ফি ও তারিখ সহ সমস্ত তথ্য এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেবে অথবা ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে ট্রেকিং নাম্বার ও পিন নাম্বার দিয়ে আপনি আপডেট যেকোনো তথ্য চেক করতে পারবেন

আবেদন করার জন্য ডকুমেন্ট বিষয়াবলী

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন করার জন্য যে সম্পূর্ণ বিষয়াবলী থাকতে হবে তা আমরা নিম্নে ধারাবাহিকভাবে তুলে ধরলাম. আপনি যদি আবাসিক নতুন মিটারের সংযোগের জন্য আবেদন করতে চান তাহলে নিচের বিষয়ে বলি অনুসরণ করতে হবে এবং সে অনুযায়ী আবেদন করতে হবে.

আবাসিক সংযোগের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য:

  • আবেদনের সময় ছবি জাতীয় পরিচয় পত্র ফটোকপি ও খারিজের স্ক্যান কপি অবশ্যই সংযুক্ত করতে হবে
  • সংযোগ স্থান থেকে সার্ভিস খুঁটির দূরত্ব অবশ্যই 130 ফিটের মধ্যে থাকতে হবে
  • খুঁটির সাথে সংযোগের দূরত্ব ভালো করে মেপে সঠিকভাবে তথ্য দিতে হবে
  • মোট লোড 50 কিলো ওয়াট এর বেশি হলে একটি সংযোগ প্রযোজ্য হবে
  • অনলাইনে আবেদন করার পর প্রয়োজনীয় ফি যেমন: আবেদন ফি, মেম্বারশিপ ফি ও নিরাপত্তা জামানত জমাদান তথ্যসহ এসএমএসের মাধ্যমে আপনার মোবাইল নাম্বারে জানিয়ে দেওয়া হবে
  • আবেদন ফরমে লাল চিহ্নিত ক্ষেত্রগুলো অবশ্যই ভালোভাবে পূরণ করতে হবে
  • আবেদনপত্রে গ্রাহকের নিজের মোবাইল নাম্বার প্রদান করতে হবে এসএমএস পাওয়ার জন্য
  • ভালোভাবে আবেদন করার পর প্রাপ্ত ট্রাকিং আইডি এবং পিন নাম্বার অবশ্যই সংরক্ষণ করতে হবে
  • সংযোগের অথবা প্রদানকৃত ফি ডাচ বাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং (রকেট) এর মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে

পরিশেষে বলতে পারি নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে কিভাবে আবেদন করবেন তার একটি পূর্ণাঙ্গ ধারণা আমরা উপরে আলোচনা করেছি. আপনি যদি আবেদন করতে চান তাহলে উপরোক্ত পদ্ধতি অনুযায়ী আবেদন করুন এবং আপনার ট্রাকিং ওপেন নাম্বার দিয়ে আপডেট তথ্য দেখতে পাবেন. তাছাড়াও এই পোষ্টটি সম্পর্কে আপনার যদি আরো কোন জানা থাকে তাহলে আমাদের কমেন্ট বক্সে লিখুন. যতদূর সম্ভব আপনার উত্তরটি জানিয়ে দেব এবং পল্লী বিদ্যুতের নতুন নতুন তথ্য আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে সংযুক্ত করব. এজন্য আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন এবং নিয়মিত ভিজিট করুন

Related Articles

Back to top button