বাস

সিলেট থেকে ভৈরব বাস ভাড়া, লোকেশন, কাউন্টার নাম্বার ও দর্শনীয় স্থান

আপনি কি সিলেট থেকে ভৈরব যেতে চান এবং সিলেট থেকে ভৈরবের দূরত্ব সময়সূচী অনুসন্ধান করছেন?. আপনি এই পোস্ট থেকে জানতে পারবেন সিলেট থেকে বহুরূপ ের পরিবহনের নাম এবং টিকিটের মূল্য সম্পর্কে. তাছাড়াও সিলেট থেকে ভৈরব যেতে কত দূরত্ব এবং কত সময় লাগবে তা জানতে পারবেন. সিলেট থেকে ভৈরবের যতগুলো দর্শনীয় স্থান রয়েছে এবং আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য এখান থেকে জানা যাবে.

আসুন আপনি যদি ছেলের থেকে ভৈরব যেতে চান এবং যাওয়ার পূর্বে সিলেট অপূর্বের দর্শনীয় স্থান এবং দূরত্ব ও সময়সূচি সম্পর্কে জেনে ভ্রমণ করতে চান তাহলে এই পোস্টটি আপনাকে অনেক সহায়তা করবে।

সিলেট থেকে ভৈরব নন এসি বাস ও টিকিটের মূল্য

আপনি কি সিলেট থেকে ভৈরব যেতে চান এবং কোন পরিবহনের মাধ্যমে যাওয়া যায় তা অনুসন্ধান করেন এবং ওই পরিবহনের টিকিটের কত মূল্য তা জানতে চান তাহলে নিচের সারণী থেকে আপনি জানতে পারবেন।

পরিবহনের নাম ভাড়ার তালিকা
ইউনিক সার্ভিস 38০ টাকা

সিলেট থেকে ভৈরব যাওয়ার পরিবহন

আপনি যদি সিলেট থেকে ভৈরব যেতে চান তাহলে নিচের এই পরিবহনের মাধ্যমে বরফের যে কোন জায়গা থেকে গাড়িতে উঠে সিলেট যেতে পারবেন। কি পরিবহনের কাউন্টার নাম্বার ও লোকেশন নিচে প্রদান করা হবে।

ইউনিক সার্ভিস পরিবহনের সকল কাউন্টার নাম্বার এবং লোকেশন

সিলেট থেকে ভৈরব দূরত্ব কত?

আপনি যদি সিলেট থেকে ভৈরব  দূরত্ব অনুসন্ধান করেন এবং জানতে চান যে ভৈরব থেকে সিলেটের দূরত্ব কত তা আপনি এখান থেকে জানতে পারবেন। ভৈরব থেকে সিলেটের দূরত্ব ১৩১ দশমিক এক কিলোমিটার এবং যেতে সময় লাগে ০৭ ঘণ্টা ০৮ মিনিট।।

সিলেট থেকে ভৈরব যেতে কত সময় লাগে?

সিলেট থেকে ভৈরব যেতে সময় লাগে ০৭ ঘন্টা ০৮ মিনিট এবং মোট দূরত্ব ১৩১ কিলোমিটার. এই দীর্ঘ পথ পাড়ি দেওয়ার জন্য আপনার সময়সূচী এবং মোট দূরত্ব জানা দরকার তাহলে আপনি সময় মতো যেতে পারবেন.

সিলেট থেকে ভৈরব যাওয়ার সবচেয়ে সস্তা উপায় কি?

সিলেট থেকে ভৈরব যাওয়ার সবচেয়ে সস্তা উপায় হল গাড়ি চালানো যার দাম $13 – $20 এবং লাগে 2 ঘন্টা 18 মিলিয়ন।

সিলেট থেকে ভৈরব যাওয়ার দ্রুততম উপায় কী?

সিলেট থেকে ভৈরব যাওয়ার দ্রুততম উপায় হল ট্যাক্সি এবং ফ্লাই যার দাম $55 – $120 এবং লাগে 2ঘন্টা 2m।

গাড়ি ছাড়া ভৈরব বাজার থেকে সিলেট কিভাবে যাব?

গাড়ি ছাড়াও আপনি ভৈরব থেকে সিলেট যেতে পারবেন ট্যাক্সি মাধ্যমে এবং বাসে গেলে সময় লাগবে ৬ ঘন্টা ৩৯ মিনিট এবং খরচ হবে 23 থেকে 27 ডলার।

সিলেট সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

সিলেট বাংলাদেশের উত্তর-পূর্ব অঞ্চলের একটি প্রধান শহর এবং সিলেট বিভাগের একটি স্বনামধন্য শহর এবং এটি সিলেট জেলার অন্তর্গত। সিলেট ২০০৯ সালের মার্চ মাসে মেট্রোপলিটন শহরের মর্যাদা লাভ করে।

সিলেটের আয়তন ৩ হাজার ৪৫২ বর্গ কিলোমিটার এবং সিলেটে অসংখ্য পর্যটন স্থান রয়েছে এবং প্রতিবছর অসংখ্য পর্যটক এখানে বেড়াতে আসেন। তাছাড়াও সিলেটে অনেক কৃতি সন্তান রয়েছে।

  • জাফলং
  • ভোলাগঞ্জ
  • লালাখাল
  • তামাবিল
  • হাকালুকি হাওর
  • ক্বীন ব্রীজ
  • হযরত শাহজালাল ও হযরত শাহ পরাণ এর মাজার শরীফ
  • মহাপ্রভু শ্রী চৈত্যনো দেবের বাড়ী
  • হাছন রাজার মিউজিয়াম
  • মালনি ছড়া চা বাগান
  • ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর
  • পর্যটন মোটেল
  • জাকারিয়া সিটি
  • ড্রিমল্যান্ড পার্
  • কৈলাশটিলা
  • হাকালুকি হাওর
  • লালাখাল
  • পাংতুমাই
  • আলী আমজদের ঘড়ি
  • জিতু মিয়ার বাড়ী
  • মনিপুরী রাজবাড়ি।
  • মনিপুরী মিউজিয়াম
  • শাহী ঈদগাহ
  • ওসমানী শিশু পার্ক
  • মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত
  • সিলেটি নাগরী লিপি
  • পাংতুমাই
  • রাতারগুল
  • টাংগুয়ার হাওর
  • লোভাছড়া
  • হাম হাম জলপ্রপাত
  • কৈলাশটিলা
  • পরিকুণ্ড জলপ্রপাত
  • সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান
  • হারং হুরং
  • বরাক নদীর তিন মোহনা

উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্বঃ

  • জেনারেল এম এ জি ওসমানী- মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক।
  • মহাপ্রভু শ্রীচৈতন্যদেব- বৈষ্ণব ধর্মের প্রবর্তক।
  • মরমি কবি হাছন রাজা- বিখ্যাত মরমি কবি ও সাধক।
  • গোবিন্দ চন্দ্র দেব- দার্শনিক।
  • শামসুল উলামা আবু নসর ওহীদ- শিক্ষাবিদ।
  • হুমায়ূন রশীদ চৌধুরী- সাবেক স্পীকার।
  • ডক্টর ত্রিগুনা সেন- রাজনীতিবিদ ও শিক্ষাবিদ
  • অশোক বিজয় রাহা- বিখ্যাত আধুনিক কবি।
  • পূর্ণেন্দুকিশোর সেনগুপ্ত- ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের বিপ্লবী পুরুষ।
  • রাধারমণ দত্ত- বৈষ্ণব কবি।
  • মাওলানা আতহার আলী- রাজনীতিবিদ।
  • সুফি শিতালং শাহ- কবি।
  • শাহ আবদুল করিম – বাউল সম্রাট।
  • গুরুসদয় দত্ত – ব্রতচারী আন্দোলনের জনক।
  • নবাব আলী আমজাদ- জমিদার ও সমাজসেক
  • হেমাঙ্গ বিশ্বাস- গণসঙ্গীত শিল্পী।
  • স্বামী নিখিলানন্দ- হিন্দু ধর্মগুরু।
  • যতীন্দ্রমোহন ভট্টাচার্য – সাহিত্য গবেষক।
  • এম. সাইফুর রহমান- সাবেক অর্থমন্ত্রী।
  • আবুল মাল আবদুল মুহিত- রাজনীতিবিদ, সাবেক অর্থমন্ত্রী।
  • নুরুল ইসলাম নাহিদ – সাবেক শিক্ষামন্ত্রী।
  • মাওলানা উবায়দুল হক – জাতীয় মসজিদের সাবেক খতিব।
  • আল্লামা আব্দুল লতিফ চৌধুরী ফুলতলী- বিখ্যাত মুসলিম সাধক।
  • দিলওয়ার – গণমানুষের কবি।
  • বিচারপতি মাহমুদুল আমিন চৌধুরী – সাবেক প্রধান বিচারপতি।
  • রিয়ার এডমিরাল মাহবুব আলী খান- সাবেক মন্ত্রী ও নৌবাহিনী প্রধান।
  • আলতাফ হোসেইন- বিখ্যাত সাংবাদিক ও রাজনীতিবিদ।
  • সালমান শাহ – অভিনেতা।
  • কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ – বরেণ্য অর্থনীতিবিদ।
  • ভূদেব চৌধুরী – সাহিত্যিক ও ইতিহাসবিদ।
  • সুজেয় শ্যাম- সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক
  • হেনা দাস- বিপ্লবী নারীনেত্রী।
  • ব্রিগেডিয়ার ডাঃ আব্দুল মালিক- জাতীয় অধ্যাপক।
  • ডক্টর জামিলুর রেজা চৌধুরী – প্রকৌশলী, জাতীয় অধ্যাপক।
  • ডাঃ শাহলা খাতুন- জাতীয় অধ্যাপক।
  • আবুল কালাম আব্দুল মোমেন- পররাষ্ট্রমন্ত্রী, কূটনীতিবিদ।
  • মাওলানা নূর উদ্দিন গহরপুরী- মুসলিম পণ্ডিত।
  • আব্দুল মতিন চৌধুরী (পাকিস্তানের রাজনীতিবিদ) – প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ।
  • আল্লামা মুশাহিদ আহমদ বাইয়মপুরী- মুসলিম চিন্তাবিদ।
  • রুনা লায়লা – উপমহাদেশের বিখ্যাত কণ্ঠশিল্পী।
  • রাণী হামিদ – বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ নারী দাবাড়ু।
  • দেওয়ান একলিমুর রাজা চৌধুরী কাব্যবিশারদ
  • দানবীর রাগীব আলী- সমাজসেবক।
  • শমসের মবিন চৌধুরী- রাজনীতিবিদ।
  • সুন্দরীমোহন দাস-ব্রিটিশ বিরোধী রাজনীতিবিদ।
  • মেজর জেনারেল মইনুল হোসেন চৌধুরী বীর বিক্রম- কূটনীতিবিদ ও সামরিক কর্মকর্তা।
  • হারুন আহমেদ চৌধুরী বীর উত্তম – মুক্তিযুদ্ধা।
  • মৌলভী আবদুল করিম – সমাজসেবী।
  • নুরুর রহমান চৌধুরী – বরেণ্য রাজনীতিবিদ, পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী।
  • খান বাহাদুর আবু নছর মোহাম্মদ এহিয়া (খান বাহাদুর) – সমাজসেবক।
  • অচ্যুতচরণ চৌধুরী তত্ত্বনিধি-বাঙালি লেখক ও ইতিহাসবীদ।
  • মুহাম্মদ নুরুল হক- সাহিত্যসেবক
  • এম ইলিয়াস আলী – রাজনীতিবিদ।
  • সি এম শফি সামি- কূটনীতিক।
  • খলিল উল্লাহ খান- অভিনেতা।
  • ওস্তাদ বিদিত লাল দাস- গীতিকার ও সুরকার।
  • মঈনুস সুলতান – সাহিত্যিক
  • শাকুর মজিদ -স্থপতি, সাহিত্যিক ও নাট্যকার।
  • ইমরান আহমদ – প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী।
  • ফখর উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী:-বীর বিক্রম
  • প্রিন্সিপাল হাবিবুর রহমান, দেওবন্দি ইসলামি পণ্ডিত ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমীর (১৯৪৯–২০১৮)
  • সুহাসিনী দাস – সমাজসেবক।
  • সুরেন্দ্র কুমার সিনহা – সাবেক প্রধান বিচারপতি।
  • জিয়া উদ্দিন, দেওবন্দি ইসলামি পণ্ডিত ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সভাপতি।
  • রাজা গিরিশচন্দ্র রায়- সমাজসেবক।
  • (১৮৪৫-১৯০৮)
  • অরূপ রতন চৌধুরী -চিকিৎসক,মুক্তিযুদ্ধের শব্দসৈনিক।
  • বদর উদ্দিন আহমেদ কামরান – রাজনীতিবিদ, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র।
  • আরিফুল হক চৌধুরী – মেয়র, সিলেট সিটি কর্পোরেশন।
  • শরচ্চন্দ্র চৌধুরী (১৮৫১-১৯২৭)- মহাকবি।
  • রাধানাথ চৌধুরী (১৮৫৬-১৯৯২)-মনসামঙ্গলের কবি।
  • ইবরাহীম আলী তশনা (১৮৭২-১৯৩১)
  • গজনফর আলী খান (১৮৭২-১৯৫৯)
  • আরকুম শাহ (১৮৭৭-১৯৪১)
  • রাশেদা কে. চৌধুরী -রাজনীতিবিদ
  • ইসমাঈল আলম (১৮৬৮-১৯৩৭)
  • আবদুল গফ্ফার চৌধুরী (১৯১২-১৯৬৬)-কবি।
  • দুরবিন শাহ- বাউল সাধক।
  • শফিক-উল-হক হীরা-সাবেক ক্রিকেটার।
  • মোস্তাফিজ শফি -লেখক ও সাংবাদিক
  • আবদুল কাহির চৌধুরী
  • আবদুল মুকিত খান
  • আবদুস সালাম (রাজনীতিবিদ)
  • আব্দুর রহিম (সংসদ সদস্য)
  • আব্দুল হান্নান (রাজনীতিবিদ)
  • আলফাজ আহমেদ:ফুটবলার।
  • ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী
  • এনামুল হক চৌধুরী
  • এম এ লতিফ
  • ওবায়দুল হক
  • ওয়াহেদ আহমেদ, ফুটবলার
  • খন্দকার আব্দুল মালিক
  • মোকাব্বির খান
  • দেওয়ান তৈমুর রাজা চৌধুরী
  • নাজিম কামরান চৌধুরী
  • নুরুল ইসলাম খান
  • ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী
  • ফাতেমা চৌধুরী পারু
  • ফারুক রশিদ চৌধুরী
  • বিপলু আহমেদ:ফুটবলার।
  • ব্রজেন্দ্র নারায়ণ চৌধুরী- রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক।
  • মকসুদ ইবনে আজিজ লামা
  • মায়া আলী (রাজনীতিবিদ)
  • মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী
  • মাহমুদুর রহমান মজুমদার
  • মুহম্মদ আশরাফ আলীখ
  • মোহাম্মদ আবদুল হক
  • শফি আহমেদ চৌধুরী
  • শফিকুর রহমান চৌধুরী
  • শরফ উদ্দিন খসরু
  • শাহ আজিজুর রহমান (সংসদ সদস্য)
  • সেলিম উদ্দিন
  • সৈয়দ মকবুল হোসেন
  • সৈয়দা জেবুন্নেছা হক
  • মুহাম্মদ আব্দুল হক
  • হাফিজ আহমেদ মজুমদার
  • হাবিবুর রহমান (তোতা মিয়া)
  • হাবিবুর রহমান
  • হাবিবুর রহমান হাবিব
  • গৌরী চৌধুরী
  • তকলিস

ভৈরব সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

ভৈরব উপজেলা হচ্ছে বাংলাদেশের ঢাকা বিভাগের অন্তর্ভুক্ত একটি উপজেলা এবং উপজেলাটি কিশোরগঞ্জ জেলায় অবস্থিত। গৌরব উপজেলার অবস্থান হচ্ছে ঢাকা সিলেট মহাসড়ক এবং টাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে মেঘনা নদীর তীরে এটি একটি বাণিজ্যিক শহর। এর আয়তন হচ্ছে ১২১.৭৩ বর্গ কিলোমিটার। গৌরব থানা হিসেবে ঘোষণা করা হয় ১৯০৬ সালে এবং 1983 সালে এটিকে উপজেলায় উন্নীত করা হয়। বর্তমানে এ উপজেলার একটি পৌরসভা, সাতটি ইউনিয়ন, ৩২টি মৌজা ও ৮৪ টি গ্রাম রয়েছে।

উল্লেখযোগ্য স্থান ও স্থাপনা

  • সিরাজীয়া দরবার শরীফ
  • সৈয়দ নজরুল ইসলাম সেতু
  • জিল্লুর রহমান রেলওয়ে সেতু
  • শহীদ হাবিলদার আব্দুল হালিম রেলওয়ে সেতু
  • মেঘনা নদীর ঘাট
  • মিরার চর
  • নাজমুল হাসান পৌর পার্ক
  • শহীদ আইভি রহমান পৌর ষ্টেডিয়াম

উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্ব

  • রেবতী মোহন বর্মণ (১৮৮৯-১৯৫৬)
  • জিল্লুর রহমান (১৯২৯-২০১৩)
  • নাজমুল হাসান পাপন (সভাপতি- বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড)
  • আইভি রহমান: শহীদ নেত্রী।
  • অধ্যক্ষ জালাল উদ্দিন আহমদ: বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও শহীদ নারী নেত্রী আইভি রহমানের পিতা এবং বাংলাদেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান সাহেব তার জামাতা।

Related Articles

Back to top button