উৎসব

বাংলাদেশ রমজান সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী ২০২২ (রমজান ক্যালেন্ডার)

বিসমিল্লাহির রহমানুর রহিম। সামনে আসছে পবিত্র রমজান মাস। আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের একটি উত্তম মাস মুসলমানদের জন্য। পৃথিবীর সকল মুসলমান একই সময়ে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য রোযা পালন করবে এবং সঠিকভাবে রোজা পালনের যতগুলো পদ্ধতি বা নিয়ম রয়েছে মেনে চলবে। এইজন্য মুসলমান সম্প্রদায় তাদের রমজান মাসের সেহরি ইফতারের সময়সূচি জানতে চাও। সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি সঠিকভাবে মেনে চলার জন্য প্রতিটি মুসলমান এর জন্য গুরুত্বপূর্ণ। তাছাড়া সঠিকভাবে শিলিগুড়ি ইফতার করতে হবে এটা রোজার ফরজ। তাই আমরা রমজানের সেহরির সময়সূচি সুন্দর ও ধারাবাহিকভাবে নিচে তুলে ধরেছি এবং রমজানের ক্যালেন্ডার ডাউনলোড করতে পারবেন।

রোজার ক্যালেন্ডার পিডিএফ ডাউনলোড

মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য একটি পবিত্র ও মর্যাদাপূর্ণ মাস। আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন এই মাসটা কি মুসলমানের জন্য খরচ করে দিয়েছেন এবং আল্লাহর কাছে লাখো কোটি শুকরিয়া যে তিনি রমজান মাসের ফজিলত সম্পর্কে অনেক গুরুত্ব প্রদান করেছেন। ইসলামিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী নবম মাসটি হলো রমজান মাস। সুতরাং ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের মধ্যে একটি হল রমযান যা আল্লাহ খরচ করে দিয়েছিল জীবনের জন্য। আসুন রোজা রাখার জন্য ইফতার ও সেহরীর সময়সূচী জানতে রোজার তারিখ থেকে ডাউনলোড করি।

রমজান সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী ২০২২

পবিত্র রমজান মাস। ইংরাজি পহেলা এপ্রিল ২০২২ থেকে শুরু হবে। যদি কোন মুসলমান সেহরি ইফতারের সময়সূচি জানতে চান নতুন রমজানের ক্যালেন্ডার ডাউনলোড করতে চান নতুবা রমজানের অ্যাপসের মাধ্যমে সময়সূচী পেতে চান তাহলে আমাদের এই সাইট থেকে সকল তথ্য জানতে পারবেন. আসুন আমরা নিচে কিভাবে রোজা পালন করা যায়, রোজার নিয়ম,  প্রথম রোজার ফজিলত ও সেহরি ইফতারের সময়সূচি  ও ক্যালেন্ডার সহ বিস্তারিত তথ্য আপনাদের প্রদান করব.

রহমতের ১০ দিন
রমজান এপ্রিল/মে দিন সেহরি (am) ইফতার (pm)
০৩ এপ্রিল রবিবার  ০৪:২৭ ০৬:১৯
০৪ সোমবার  ০৪:২৬ ০৬:১৯
০৫ মঙ্গলবার  ০৪:২৫ ০৬:২০
০৬ বুধবার  ০৪:২৪ ০৬:২০
০৭ বৃহস্পতিবার  ০৪:২৩ ০৬:২১
০৮ শুক্রবার  ০৪:২২ ০৬:২১
০৯ শনিবার  ০৪:২১ ০৬:২২
১০ রবিবার  ০৪:২০ ০৬:২২
১১ সোমবার  ০৪:১৯ ০৬:২২
১০ ১২ মঙ্গলবার  ০৪:১৮ ০৬:২৩
মাগফিরাতের ১০ দিন
১১ ১৩ বুধবার  ০৪:১৬ ০৬:২৩
১২ ১৪ বৃহস্পতিবার  ০৪:১৫ ০৬:২৩
১৩ ১৫ শুক্রবার  ০৪:১৪ ০৬:২৪
১৪ ১৬ শনিবার  ০৪:১৩ ০৬:২৪
১৫ ১৭ রবিবার  ০৪:১২ ০৬:২৪
১৬ ১৮ সোমবার  ০৪:১১ ০৬:২৫
১৭ ১৯ মঙ্গলবার  ০৪:১০ ০৬:২৫
১৮ ২০ বুধবার  ০৪:০৯ ০৬:২৬
১৯ ২১ বৃহস্পতিবার  ০৪:০৮ ০৬:২৬
২০ ২২ শুক্রবার  ০৪:০৭ ০৬:২৭
নাজাতের ১০ দিন
২১ ২৩ শনিবার ০৪:০৬ ০৬:২৭
২২ ২৪ রবিবার  ০৪:০৫ ০৬:২৮
২৩ ২৫ সোমবার ০৪:০৫ ০৬:২৮
২৪ ২৬ মঙ্গলবার ০৪:০৪ ০৬:২৯
২৫ ২৭ বুধবার ০৪:০৩ ০৬:২৯
২৬ ২৮ বৃহস্পতিবার ০৪:০২ ০৬:২৯
২৭ ২৯ শুক্রবার ০৪:০১ ০৬:৩০
২৮ ৩০ শনিবার ০৪:০০ ০৬:৩০
২৯ ০১ মে রবিবার ০৩:৫৯ ০৬:৩১
৩০ ০২ সোমবার ০৩:৫৮ ০৬:৩১

১ম রমজান সেহরি ও ইফতারের সময়
সেহরির শেষ সময় ৪টা ২৭ মিনিট
ইফতারের সময় ৬টা ১৯ মিনিট

ঢাকা সময়ের সাথে সেহেরিতে সময় বাড়াতে হবে নিম্নোক্ত জেলাগুলোতে

মানিকগঞ্জ, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, পঞ্চগড়, নীলফামারী – ১মিনিট

ভোলা, শরীয়তপুর, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, জয়পুরহাট, ফরিদপুর, মাদারীপুর, বরিশাল – ২মিনিট

নওগাঁ, ঝালকাঠি – ৩মিনিট

নাটোর, পাবনা, রাজবাড়ী, মাগুরা, পটুয়াখালী, গোপালগঞ্জ – ৪মিনিট

কুষ্টিয়া, রাজশাহী, পিরোজপুর, বরগুনা, নড়াইল, বাগেরহাট, ঝিনাইদহ – ৫মিনিট

চাঁপাইনবাবগঞ্জ, যশোর, চুয়াডাঙ্গা, খুলনা – ৬মিনিট

মেহেরপুর– ৭মিনিট

সাতক্ষীরা– ৮ মিনিট

ঢাকা সময়ের সাথে সেহরিতে সময় কমাতে হবে নিম্নোক্ত জেলাগুলোতে

গাজীপুর, লক্ষীপুর, রংপুর, নোয়াখালী, গাইবান্ধা, কক্সবাজার – ১মিনিট

শেরপুর, জামালপুর, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, চট্টগ্রাম, নরসিংদী – ২মিনিট

কুমিল্লা, ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ, ফেনী – ৩মিনিট

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, রাঙামাটি, বান্দরবান – ৪মিনিট

নেত্রকোনা, খাগড়াছড়ি – ৫মিনিট

হবিগঞ্জ– ৬মিনিট

সুনামগঞ্জ– ৭মিনিট

মৌলভীবাজার– ৮মিনিট

সিলেট– ৯মিনিট

ঢাকা সময়ের সাথে ইফতারের সময় বাড়াতে হবে নিম্নের জেলাগুলোতে

গোপালগঞ্জ, বাগেরহাট, ময়মনসিং – ১ মিনিট

মানিকগঞ্জ, টাংগাইল, ফরিদপুর, নড়াইল, খুলনা – ২ মিনিট

শেরপুর, মাগুরা – ৩ মিনিট

সিরাজগঞ্জ, জামালপুর, রাজবাড়ী, যশোর, সাতক্ষীরা – ৪ মিনিট

কুষ্টিয়া, পাবনা, ঝিনাইদহ – ৫ মিনিট

চুয়াডাঙ্গা, গাইবান্ধা, বগুড়া – ৬ মিনিট

নাটোর, মেহেরপুর, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট – ৭ মিনিট

রাজশাহী, নওগাঁ, রংপুর, জয়পুরহাট – ৮ মিনিট

নীলফামারী, দিনাজপুর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ – ১০ মিনিট

পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও – ১২ মিনিট

ঢাকা সময়ের সাথে ইফতারির সময় কমাতে হবে নিম্নোক্ত জেলাগুলিতে

শরীয়তপুর, কিশোরগঞ্জ, নরসিংদী, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, ঝালকাঠি – ১মিনিট

বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা, সুনামগঞ্জ, চাঁদপুর – ২মিনিট

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, লক্ষ্মীপুর, ভোলা, হবিগঞ্জ – ৩মিনিট

কুমিল্লা, নোয়াখালী, সিলেট, মৌলভীবাজার – ৪মিনিট

খাগড়াছড়ি, চট্টগ্রাম – ৮মিনিট

রাঙামাটি– ৯মিনিট

বান্দরবান, কক্সবাজার – ১০মিনিট

রমজান ক্যালেন্ডার 2022 – ঢাকা

S. No সেহরি ইফতার তারিখ
1 04:34 AM সন্ধ্যা ৬:১৫ 01 এপ্রিল 2022
2 04:33 AM সন্ধ্যা ৬:১৫ 02 এপ্রিল 2022
3 04:32 AM সন্ধ্যা ৬:১৬ 03 এপ্রিল 2022
4 04:31 AM সন্ধ্যা ৬:১৬ 04 এপ্রিল 2022
5 04:30 AM সন্ধ্যা ৬:১৭ 05 এপ্রিল 2022
6 04:28 AM সন্ধ্যা ৬:১৭ 06 এপ্রিল 2022
7 04:27 AM সন্ধ্যা ৬:১৭ 07 এপ্রিল 2022
8 04:26 AM সন্ধ্যা ৬:১৮ 08 এপ্রিল 2022
9 04:25 AM সন্ধ্যা ৬:১৮ 09 এপ্রিল 2022
10 04:24 AM সন্ধ্যা ৬:১৯ 10 এপ্রিল 2022
11 04:23 AM সন্ধ্যা ৬:১৯ 11 এপ্রিল 2022
12 04:22 AM সন্ধ্যা ৬:১৯ 12 এপ্রিল 2022
13 04:21 AM সন্ধ্যা ৬:২০ 13 এপ্রিল 2022
14 04:20 AM সন্ধ্যা ৬:২০ 14 এপ্রিল 2022
15 04:19 AM 6:21 PM 15 এপ্রিল 2022
16 04:18 AM 6:21 PM 16 এপ্রিল 2022
17 04:17 AM 6:21 PM 17 এপ্রিল 2022
18 04:16 AM 6:22 PM 18 এপ্রিল 2022
19 04:15 AM 6:22 PM 19 এপ্রিল 2022
20 04:14 AM সন্ধ্যা ৬:২৩ 20 এপ্রিল 2022
21 04:13 AM সন্ধ্যা ৬:২৩ 21 এপ্রিল 2022
22 04:12 AM সন্ধ্যা ৬:২৪ 22 এপ্রিল 2022
23 04:11 AM সন্ধ্যা ৬:২৪ 23 এপ্রিল 2022
24 04:10 AM সন্ধ্যা ৬:২৪ 24 এপ্রিল 2022
25 04:09 AM সন্ধ্যা ৬:২৫ 25 এপ্রিল 2022
26 04:08 AM সন্ধ্যা ৬:২৫ 26 এপ্রিল 2022
27 04:07 AM সন্ধ্যা ৬:২৬ 27 এপ্রিল 2022
28 04:06 AM সন্ধ্যা ৬:২৬ 28 এপ্রিল 2022
29 04:05 AM সন্ধ্যা ৬:২৭ 29 এপ্রিল 2022
30 04:04 AM সন্ধ্যা ৬:২৭ 30 এপ্রিল 2022

রমজান অর্থ কি?

সন্ত শব্দটি এসেছে কোন শব্দ থেকে আর রব শব্দের আভিধানিক অর্থ জ্বালিয়ে দেওয়া, যোগ্য করা, মানুষের মনের কালিমা পড়িয়ে নষ্ট করে দিয়ে মনকে নির্মল অপবিত্র করা। তবে রোযা একটি ফারসি শব্দ যার আভিধানিক অর্থ হচ্ছে সিয়াম। ইসলামিক ক্যালেন্ডার এর আরবি মাস অনুসারে বর্তমানে ১৪৪৩ হিজরী। আসুন আমরা বাংলাদেশের ইসলামী ফাউন্ডেশন কর্তৃক প্রকাশিত সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী 2022.

রোজার বারোটি পালনীয় বিষয়

রমজান শব্দটি আরবী। যার উৎপত্তি রাজধানী থেকে এবং অর্থ হচ্ছে দহন করা বা ঝলসে দাও। আর রোজা শব্দটি ফারসি শব্দ যার আভিধানিক অর্থ হচ্ছে সিয়াম। তাই এই মাছটির নাম রমজান মাস।

বছর ঘুরে মাত্র একবার আসে রমজান মাস। আর এ মাসেই ফরজ করা হয়েছে সাওম, সিয়াম বা রোজা। এ প্রসঙ্গে আল্লাহ তায়ালা বলেন,

يَـٰٓأَيُّهَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُوا۟ كُتِبَ عَلَيْكُمُ ٱلصِّيَامُ كَمَا كُتِبَ عَلَى ٱلَّذِينَ مِن قَبْلِكُمْ لَعَلَّكُمْ تَتَّقُونَ

O believers! Fasting is prescribed for you—as it was for those before you, so perhaps you will become mindful of Allah.

আর এ মাসে মাত্র ১২ টি বিষয় পালন করার মাধ্যমে একজন মানুষ রোজার এ মাসের সঠিক ও পরিপূর্ণ ব্যবহার করার মাধ্যমে নিজের জীবনের সকল

গুনাহ মাফ লাভের সুযোগ পেতে পারে।

নিচে রমজান মাসে ১২ টি পালনীয় বিষয় আলোচনা করছি।

রমজান জুড়ে ভালো কাজের পরিকল্পনা করবেন – ০১

ওজর ব্যতীত রোজা বাদ দেবেন না- ০২

লোক দেখানে রোজা পরিহার করা-০৩

মন্দ কাজ থেকে বেচে থাকা- ০৪

রোজার পুরস্কার সমূহ লাভের দোয়া করা-০৫

রোজার কষ্টকে হাসিমুখে মেনে নেবেন ০৬

ওজর থাকলে রোজা পরিত্যাগ করবেন-০৭

গীবত ও কুসৃস্টি থেকে বেঁচে থাকবেন -০৮

হালাল রুজির চেষ্টা করবেন -০৯

সেহরি নিয়ম অনুযায়ি খাবেন ১০

ইফতার করবেন যে পদ্ধতিতে- ১১

রোজাদারকে বেশে বেশি ইফতার করাবেন- ১২

সেহরী কেন খাবেন?

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বলেছেন সেহরি খাওয়া সুন্নত এবং তোমরা শিহরি খাও এটাতে অনেক বদলে গেছে। রমজান মাসের সেহরি আল্লাহতালা এবং তাদের ফেরেশতাগণ তাদের উপর রহমত বর্ষণ করেন। রোজার নিয়ত করে রোজা রাখা ফরজ। তবে আপনি আরবি নতুবা যেকোনো ভাষায় রোজার নিয়ত করতে পারেন। এজন্য রমজান মাসের সেহরি খাওয়া খুবই প্রয়োজন এবং আল্লাহর রহমত।

ইফতারের ফজিলত

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বলেন যতদিন পর্যন্ত মানুষ অবিলম্বে গ্রেফতার করবে ততদিন পর্যন্ত তারা কল্যাণ এর মধ্যে থাকবে এবং আল্লাহর রহমত বর্ষিত হবে। এজন্য ইফতার করা ফরজ। যে ব্যক্তি রোযাদার ব্যক্তিকে ইফতার খাওয়াবে তার প্রতি আল্লাহর রহমত নাজিল হবে তবে ইফতার করার সঠিক সময় সূচি জানতে হবে। সারাদিন রোজা রাখার পর সঠিক সময় ইফতার করতে হবে। যদি কেউ সঠিক সময়ে তার না করে তাহলে মাকরুহ হবে কারণ সঠিক সময়ে তার করা মুস্তাহাব।

রমজান মাসে সারাদিন রোজা রেখে সঠিক সময়ে তার করতে হবে। কারণ সঠিক সময়ে ইফতার করা মুস্তাহাব। ইফতারের আগে আল্লাহর কাছে দোয়া করতে হবে কারণ এই দোয়া আল্লাহর অনেক রহমত আসে এবং দোয়া কবুল করেন। ইফতার সম্পর্কে রাসূল সাল্লাহু সাল্লাম বলেনঃ তোমরা খেজুর দিয়ে ইফতার করো এবং আর তা না পাওয়া গেলে পানি দিয়ে ইফতার করো তিরমিজি শরীফ।

রমজানের চোখের হেফাজত ও ফজিলত

রমজান মাসে চোখের পদত্যাগপত্রের দৃষ্টিপাত না করা, জীবনে আঘাত করা অর্থাৎ মিথ্যা করে বাজে কথা কটুবাক্য হতে বাকি সংযত রাখা। এজন্য রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সালাম বলেছেন গীবতকারী ও শ্রোতাদের মধ্যে শামিল হবেন। প্রচার কবুল হওয়ার আরেকটি ফুজুল হচ্ছে চোখে খারাপ দৃষ্টিতে অতিবাহিত না করা।

ইফতারে যা যা খাবেন

ডাবের পানি, ঘরের তৈরি হাসান ঘিয়ে, ভাজা বাদাম, অনেক রকম সালা, প্রচুর শাকসবজি, ফল, পেয়ারা, আনারস, তরমুজ ইত্যাদি রমজান মাস। ইফতারের সময় খেজুর দিয়ে ইফতার করা ভালো। তবে ইসলামী শরীয়া মোতাবেক ইফতার করা সুন্নত।

রোজাদারদের বিশেষ পাঁচটি পুরস্কার যা আল্লাহ দিবেন

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম ইরশাদ করেন যে আমার উম্মত কে রমজানের ব্যাপারে পাঁচটি জিনিস আল্লাহ নিজেই পরিষ্কৃত করবেন আর সেগুলো হচ্ছে

  • রোযাদারের মুখের ঘ্রাণ আল্লাহর কাছে মেসক এর চেয়েও অধিক প্রিয়।
  • ফেরেস্তারা প্রতিদিন রোজাদারের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করতে থাকে।
  • জান্নাতকে প্রতিদিন তাদের জন্য সুসজ্জিত করা হয় অতঃপর আল্লাহ তাআলা এরশাদ করেন, আমার নেক বান্দারা দুনিয়ার ক্লেশ যাতনা দূরে নিক্ষেপ করে অতিসত্বর তোমার নিকট আসছে।
  • এ মাসে দুষ্টুও অবাধ্য শয়তান দিগকে আবদ্ধ করে রাখা হয়। যার কারণে তারা ঐ সব পাপ করাতে পারে না, যা অন্য মাসে করানো সম্ভব।
  • রমজানের সর্বশেষ রাতে রোজাদারদেরকে মাফ করে দেওয়া হয়। সাহাবা একরাম আরজ করলেন, ইয়া রাসুলুল্লাহ সেই রাত কি শবে কদর? উত্তরে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, না বরং নিয়ম হলো কাজ শেষ হলে মজুরকে তার মজুরী দিয়ে দেওয়া। বায়হাকীর শুয়াবুল ঈমান কানযুল উম্মাল, পৃ. ৩০২।

Related Articles

Back to top button